বিমানের সঙ্গে পাখির সংঘর্ষ! জীবনের ঝুঁকি ১৪২ যাত্রীর - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Tuesday, 3 January 2023

বিমানের সঙ্গে পাখির সংঘর্ষ! জীবনের ঝুঁকি ১৪২ যাত্রীর



পাটনা বিমানবন্দরে একটি বড় বিমান দুর্ঘটনা এড়ানো হয়েছে।  মঙ্গলবার বেঙ্গালুরু থেকে গোএয়ারের একটি বিমানের সঙ্গে পাখির সংঘর্ষ হয়।  ফ্লাইটে 142 জন যাত্রী ছিলেন।  সবাই নিরাপদ বলে জানা গেছে।  বিমানটি পাটনা বিমানবন্দরে নিরাপদ অবতরণ করেছে।  বলা হচ্ছে, বেঙ্গালুরু থেকে গোএয়ারের ফ্লাইট পাটনা বিমানবন্দরে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গেই পাখির সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।



 তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার বেঙ্গালুরু থেকে পাটনাগামী GoAir ফ্লাইট নম্বর G8-274 অবতরণের সময় বিমানের সঙ্গে একটি পাখির সংঘর্ষ হয়।  এতে ফ্লাইটে উপস্থিত যাত্রীদের জীবন বিপন্ন হয়ে পড়ে।  তবে পাইলটের বিচক্ষণতার কারণে বিমানটি পাটনা বিমানবন্দরে নিরাপদ অবতরণ করে।  কোনও যাত্রীর আহত হওয়ার খবর নেই।



 বলা হচ্ছে, পাখির সংঘর্ষের ঘটনায় বিমানের ইঞ্জিন নষ্ট হয়ে গেছে।  ইঞ্জিনের একটি ব্লেড ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, যা দিল্লীতে প্রতিস্থাপন করা হবে। 



আধিকারিকরা জানিয়েছেন, গোএয়ারের যে বিমানটি থেকে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে সেটি ছিল একটি এয়ারবাস 320 বিমান।  পরে তাকে পাটনা থেকে নতুন দিল্লীতে এয়ারলিফ্ট করা হয়েছিল, যেখানে তাকে গ্রাউন্ড করা হয়েছে।  এছাড়াও, সেই বিমানের ফ্লাইট নম্বর G8-144 বৃহস্পতিবার পাটনা-দিল্লীর মধ্যে নির্ধারিত ছিল।  পাখির সংঘর্ষের পরে পাটনা-দিল্লী গোএয়ারের ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে, যার ফলে 175 জন যাত্রীর অসুবিধা হয়েছে।  এয়ারলাইন্সের আধিকারিকরা বলছেন যে দিল্লিগামী প্রায় 100 যাত্রীকে সন্ধ্যায় অন্যান্য ফ্লাইটে সমন্বয় করা হচ্ছে।  এছাড়াও, আরও 75 জন যাত্রীর টিকিট পুনর্নির্ধারণ বা ফেরত দেওয়া হবে।




এর আগেও পাটনা বিমানবন্দরে পাখির সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।  19 জুন 2022-এ, পাটনা থেকে দিল্লীগামী একটি স্পাইসজেট ফ্লাইট একটি পাখির সাথে ধাক্কা খেয়েছিল।  এর পর বিমানের ইঞ্জিনে আগুন ধরে যায়।  স্থানীয় লোকজন বিমানের ইঞ্জিন থেকে ধোঁয়া উঠতে দেখে সঙ্গে সঙ্গে প্রশাসনকে খবর দেন।  এরপর পাটনা বিমানবন্দরে বিমানটিকে নিরাপদ অবতরণ করা হয়।



 পাখির সংঘর্ষের ঘটনা রোধ করতে পাটনা বিমানবন্দর প্রশাসনের পক্ষ থেকে বেশ কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।  বিমানবন্দরের আশপাশের এলাকায় পটকা জ্বালিয়ে পাখিদের উড়িয়ে দেওয়া হয়।  তবে দুর্ঘটনার আশঙ্কা এখনও রয়ে গেছে।  পাটনা বিমানবন্দরের আশেপাশে অনেক মাংসের দোকান থাকায় তাদের বর্জ্য সেখানে ফেলা হয়।  এ কারণে বিমানবন্দরের আশেপাশে পাখিদের আনাগোনা থাকে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad