"নেতাজির অসমাপ্ত কাজ শেষ করব", আরএসএস-এর মঞ্চে বললেন মোহন ভাগবত - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Monday, 23 January 2023

"নেতাজির অসমাপ্ত কাজ শেষ করব", আরএসএস-এর মঞ্চে বললেন মোহন ভাগবত



সোমবার নেতাজির জন্মবার্ষিকীতে কলকাতার শহিদ মিনারে সমাবেশে ভাষণ দেন মোহন ভাগবত।আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত বলেন, "নেতাজির অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে হবে। দেশের জন্য তিনি নিজের জীবন উৎসর্গ করেন।  নেতাজি কখনও নিজের স্বার্থ দেখেননি।  তিনি তাই শিক্ষিত ছিলেন।  তিনি বিলাসবহুল জীবনযাপন করতে পারতেন, কিন্তু তিনি নির্বাসন বেছে নেন।  দেশের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন।"  তিনি বলেন যে "আমরা প্রত্যেকেই আরএসএস পরিবারে প্রবেশের জন্য কারও না কারও হাত ধরেছি।"  নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ভাইপো অর্ধেন্দু বসুও উপস্থিত ছিলেন আরএসএসের অনুষ্ঠানে।



 তিনি বলেন, "এটা বাংলায় নতুন কিছু নয়।  প্রতি বছর আমরা এই ধরনের অনুষ্ঠান করি।  সঙ্ঘ এখন বড় পরিবারে পরিণত হয়েছে।  সবাই এখন আমাদের চেনে।  আমরা অভিবাদন জানাই এবং স্মরণ করি যারা আমাদের জন্য জীবন পরিচালনা করেছেন।"



 মোহন ভাগবত বলেন, "দেশের জন্য যা করি কম।  বিনিময়ে আমরা নেতাজিকে কী দিয়েছিলাম?  কিছুই না।  আমরা কখনও নেতাজির প্রতি ন্যায়বিচার করিনি, না গুরু গোবিন্দ সিংয়ের প্রতি।  যারা অন্যের স্বার্থে কাজ করেন তাদেরও সমালোচনার মুখে পড়তে হয়।  কারণ তিনি এমন কিছু আশা করেননি যা আমরা আজও তাকে স্মরণ করি।  শুধু পরিবারকেই ছেড়ে দেননি, দেশের জন্য লড়াই করেছেন।  তিনি কর্তৃপক্ষকে চ্যালেঞ্জ করেন।  ভাগ্য সহায় থাকলে সে আমাদের মাঠে অনেক দূর যেতে পারত।"



মোহন ভাগবত বলেন, "প্রতিটি পথই গন্তব্যে নিয়ে যায়।  সুভাষ বাবু এবং কংগ্রেসের আন্দোলন ভারতকে এক পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিল, কিন্তু পরে নেতাজি বুঝতে পেরেছিলেন যে একটি সশস্ত্র আন্দোলন দরকার।  সবার লক্ষ্য ছিল একই।  সেই লক্ষ্যে নেতাজি বেছে নেন ভিন্ন পথ।  এটা আমরা সঙ্ঘের লোকেরা করি।  আমরা দেশের ঐতিহ্যকে বাঁচিয়ে রাখি।  বিশ্বে শান্তি আনার জন্য আমাদের ভারত, আমরা সেই জন্য কাজ করি।  একটি সমৃদ্ধ ভারত প্রয়োজন।  ভারতের কাছ থেকে বিশ্বের যা প্রয়োজন, আমরা প্রত্যাশা পূরণের চেষ্টা করছি।  নেতাজি তাঁর বইয়ে যা বলেছেন, সেটাই আমাদের লক্ষ্য, যার জন্য আমরা কাজ করি।  ভারত একটি ছোট পৃথিবী।  আমরা যদি ভারতের সমস্যার সমাধান করি তাহলে বিশ্বের সমস্যার সমাধান হবে।আমাদের কিছু খারাপ দিক ছেড়ে দেওয়া উচিৎ।  আমরা স্বার্থপর হয়ে গেছি।  আমরা আর যৌথভাবে কাজ করি না।"



 মোহন ভাগবত বলেন, “আমাদের অবশ্যই সমস্ত স্ব-আরোপিত বিনোদন ত্যাগ করতে হবে।  দেশ প্রথম।  ভারত মাতা প্রথম।  আমাদের সত্যিকারের মানুষ দরকার, একজন সত্যিকারের মানুষ।  ইউনিয়ন কি?  এটি একটি ব্যক্তিত্বের বিকাশ।  নিজেকে যোগ্য করে তুলতে বলেছেন সুভাষবাবু।  শাখা নিয়মিত চর্চা করতে হবে।  এটি একটি অভ্যাস হওয়া উচিৎ।  আমরা আমাদের উদ্দেশ্য ভুলে গেছি।  আমরা দেশকে একটি ইউনিয়নের মতো করতে চাই।  আমাদের নির্বাচনে জেতার দরকার নেই, আমাদের জনপ্রিয়তার দরকার নেই, আমাদের বিখ্যাত হওয়ার দরকার নেই, আমাদের দেশকে সমৃদ্ধ করতে হবে।  সুভাষ বাবু দেশের জন্য সুখে জীবন উৎসর্গ করেছেন।  আজ মরার দরকার নেই দেশ গড়তে হবে।"

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad