মধ্যযুগীয় বর্বরতা! জোর করিয়ে প্রস্রাব পান, অপমানে চরম পদক্ষেপ বৃদ্ধের - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Sunday, 29 May 2022

মধ্যযুগীয় বর্বরতা! জোর করিয়ে প্রস্রাব পান, অপমানে চরম পদক্ষেপ বৃদ্ধের


মুর্শিদাবাদ: জাদু-টোনা করে এই সন্দেহে জনসমক্ষে প্রস্রাব ও মলমূত্র পান করতে বাধ্য করায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী ৬৮ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। এমনই অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল মুর্শিদাবাদে। মৃতের নাম মানিক সর্দার। ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।


জানা গেছে, ঘটনাটি মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জ থানা এলাকার মথুরাপুর গ্রামের। স্থানীয় লোকজন জানায়, জনতা সর্দারের মেয়ে (মানিক সর্দারের নাতনি) অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসার জন্য ওঝার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। সেই সময় মেয়েটির মৃত্যু হয়, ঘটনাটি সোমবারের। 


মেয়েটি মারা গেলে ওঝা জানান, মেয়েটির দাদু ও পাশের বাড়ির চারজন সদস্য তার ওপর জাদু-টোনা করত। মেয়ের মৃত্যুর জন্য এই মানুষরাই দায়ী। ওঝার কথায় বিশ্বাস করে গ্রামবাসীরা সেই সমস্ত লোকদের মেরে ফেলবে বলে বদ্ধপরিকর হয়। গ্রামবাসীরা প্রথমে মানিক সর্দারকে নির্মমভাবে মারধর করে।


বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা এখানেই থেমে থাকেনি, পরে মানিক সর্দারকে প্রস্রাব ও মল পান করতে বাধ্য করে। বিপুল জনসমাগম ও তাদের ক্ষোভের কারণে মানিককে এমন কিছু করতে হয়েছে, যা কোনও সভ্য সমাজের সঙ্গে শোভা পায় না। মানিক প্রস্রাব ও মল খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।  আশঙ্কাজনক অবস্থায় জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন মানিক। একই ঘটনায় আরেক পরিবারের সদস্যদেরও প্রস্রাব পান করানো হয়।


এদিকে মানিক তার সাথে ঘটে যাওয়া এই চরম অপমানজনক ঘটনাটি ভুলতেই পারছিলেন না। তিনি এতটাই মর্মাহত হন, যে আত্মহননের পথ বেছে নেন। এই ঘটনার পর গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে খবর পেয়ে পুলিশও ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

 

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad