নির্জন আশ্রমের ভিতরে যুবতীর সঙ্গে দুষ্কর্ম! ধরা পড়তেই পালালেন পুলিশ কর্মী, তুমুল বিক্ষোভ এলাকায় - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Friday, 17 June 2022

নির্জন আশ্রমের ভিতরে যুবতীর সঙ্গে দুষ্কর্ম! ধরা পড়তেই পালালেন পুলিশ কর্মী, তুমুল বিক্ষোভ এলাকায়


পশ্চিম মেদিনীপুর: নির্জন আশ্রমের ভিতরে যুবতীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় থানার এক NVF কর্মী, স্থানীয় এক ব্যক্তি হাতেনাতে ধরতেই সেখান থেকে পালিয়ে যায় ওই যুবক। এদিকে, খবর চাউর হতেই ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। রাজ্য সড়ক অবরোধ করে তুমুল বিক্ষোভ দেখান এলাকার বাসিন্দারা। ঘটনাস্থলে পুলিশ এলে তাঁদের ঘিরে ধরেও চলে বিক্ষোভ। ঘটনা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনার ধরমপুর এলাকায়। 


সূত্রে জানা যায়, ধরমপুর এলাকায় চন্দ্রকোনা টাউন এলাকায় রাজ্য সড়কের ধারে নির্জন জায়গায় একটি আশ্রম রয়েছে। অভিযোগ, চন্দ্রকোনা থানার এক NVF কর্মীকে ওই আশ্রমেই এক যুবতীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। এক ব্যক্তি এসে হাতেনাতে তাদের ধরে ফেললে দৌড়ে পালিয়ে যায় ওই NVF কর্মী। সিসিটিভিতেও ধরা পড়ে সেই ছবি। অথচ তার পরেও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি চন্দ্রকোনা থানার পুলিশ।


এদিকে ঘটনার কথা চাউর হতেই ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় গোটা এলাকায়। এলাকার মানুষদের বক্তব্য, ওই আশ্রমের পাশেই রয়েছে একটি মন্দির। সেখানে কী করে একজন পুলিশ কর্মী হয়ে এমন কীর্তি করল ওই যুবক! এছাড়াও রাজ্য সড়কের ধারে পুলিশের পেট্রোলিং থাকে। তাঁদের চোখ এড়িয়ে এই ঘটনা ঘটল কীভাবে, স্থানীয়দের প্রশ্ন।


এলাকার মানুষের দাবী, ঘটনা নিয়ে চন্দ্রকোনা থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে পুলিশ তাঁদের উল্টে‌ হুমকি দেয়। এরপরই সন্ধ্যা থেকে দফায় দফায় ওই এলাকায় চলে সড়ক অবরোধ। যার জেরে যানজটে নাকাল হন সাধারণ মানুষ। এমনকি, পুলিশ অবরোধ তুলতে এলে তাঁদের ঘিরে ধরে ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয়রা। সূত্রের খবর, স্থানীয়রা ও যুবতীর পরিবারের তরফে NVF কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে গেলে পুলিশে আইনে রাস্তায় হাঁটতে চায়নি। অভিযোগ নেওয়া তো দূর ‘সালিশি সভা’ ডেকে ‘মিটমাট’ করিয়ে নেওয়ারও কথা বলে বলেও স্থানীয়দের একাংশের দাবী। যদিও শেষ পর্যন্ত পুলিশ গোটা ঘটনাটি মীমাংসার আশ্বাস দিলে রাত পৌনে এগারোটা নাগাদ অবরোধ উঠে যায় বলে জানা গিয়েছে।


এদিকে, এ ঘটনার পর থেকেই লোকলজ্জার ভয়ে ঘরে সিঁটিয়ে আছেন যুবতীর পরিবারের সদস্যরা।  ঘটনায় গোটা এলাকায় ঢিঢি পড়ে গিয়েছে তাতে মেয়ের বিয়ে কীভাবে দেবে তা ভেবেই দিশাহারা হয়ে যাচ্ছেন যুবতীর মা। ঘটনা প্রসঙ্গে যুবতীর মা বলেন, ”আমার মেয়েকে ফোন করে ডেকেছিল। আমার মেয়ে প্রথমে আশ্রমে গিয়ে বাইরে দাঁড়িয়ে থাকলেও হাত ধরে জোর করে ঘরে ঢুকিয়ে দেয়। এখন আমার মেয়ের আর বিয়ে হবে?” ইতিমধ্যেই ওই যুবতীকে  NVF কর্মীর বিয়ের দাবীও তুলেছেন স্থানীয়রা। 



No comments:

Post a Comment

Post Top Ad