মাঙ্কিপক্সকে বিশ্ব স্বাস্থ্য জরুরী হিসেবে ঘোষণা হুর! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 23 July 2022

মাঙ্কিপক্সকে বিশ্ব স্বাস্থ্য জরুরী হিসেবে ঘোষণা হুর!



বিশ্বজুড়ে মাঙ্কিপক্সের ক্রমবর্ধমান সংক্রমণ নিয়ে উদ্বিগ্ন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।  শনিবার, WHO মাঙ্কিপক্স নিয়ে একটি সতর্কতা জারি করেছে।  মাঙ্কিপক্সের ক্রমবর্ধমান সংক্রমণের কারণে, ডব্লিউএইচও মাঙ্কিপক্সকে বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য জরুরী হিসাবে ঘোষণা করেছে। ডাব্লুএইচও এখন মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাবকে বৈশ্বিক স্বাস্থ্যের জন্য একটি গুরুতর হুমকি এবং এটির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য একটি সমন্বিত আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়ার প্রয়োজন হিসাবে দেখে। ডব্লিউএইচও সর্বশেষ 2020 সালের জানুয়ারিতে কোভিড -19 এর প্রাদুর্ভাবের প্রতিক্রিয়া হিসাবে বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা জারি করেছিল। উল্লেখ্য, ইউরোপ এখনও এই প্রাদুর্ভাবের কেন্দ্রস্থল।  অন্যদিকে, ভারতে এখনও পর্যন্ত তিনটি সংক্রমণের বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে।




 বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ক্রমবর্ধমান মাঙ্কিপক্স প্রাদুর্ভাবের জন্য তার সর্বোচ্চ সতর্কতা স্তর সক্রিয় করেছে, ভাইরাসটিকে আন্তর্জাতিক উদ্বেগের একটি জনস্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে।  এর মানে এই যে বিশ্বকে এখন এই রোগটি দূর করতে হবে।  এই রোগ সম্পর্কে সতর্ক হওয়া উচিৎ।  ডাব্লুএইচও এখন মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাবকে বৈশ্বিক স্বাস্থ্যের জন্য একটি গুরুতর হুমকি হিসেবে দেখে এবং এটি মোকাবেলায় একটি সমন্বিত আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়ার প্রয়োজন যাতে ভাইরাসটি আরও ছড়িয়ে না পড়ে এবং একটি মহামারীতে পরিণত না হয়৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অবশ্য এই সতর্কতার অর্থ নয় যে কোনও দেশকে এই রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বাধ্য করা।  এই সতর্কতা এই রোগ সম্পর্কে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য।  ডব্লিউএইচও শুধুমাত্র তার সদস্য রাষ্ট্রগুলোকে নির্দেশনা ও সুপারিশ জারি করতে পারে, এটাকে বাধ্যতামূলক নয়।  



জাতিসংঘ (UN) সংস্থা গত মাসে মাঙ্কিপক্সের জন্য বিশ্বব্যাপী জরুরি অবস্থা ঘোষণা করতে অস্বীকার করেছে।  কিন্তু গত কয়েক সপ্তাহে সংক্রমণ যথেষ্ট পরিমাণে বেড়েছে, WHO মহাপরিচালক টেড্রোস আধানম ঘেব্রেইসাসকে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করতে বাধ্য করেছে। WHO-এর তথ্য অনুযায়ী, এ বছর এ পর্যন্ত 75টি দেশে মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত হয়েছে। 16,000-এরও বেশি সংক্রমণ রিপোর্ট করা হয়েছে।  জুনের শেষ থেকে জুলাইয়ের প্রথম দিকে নিশ্চিত সংক্রমণের সংখ্যা 77 শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।  যেসব পুরুষের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক রয়েছে তাদের এই সময়ে সংক্রমণের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি বলা হচ্ছে।এ বছর আফ্রিকায় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন পাঁচজন।  আফ্রিকার বাইরে এখন পর্যন্ত মাঙ্কিপক্সে কোনো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।


 


 মে মাসের শুরু থেকেই বিশ্বজুড়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে মাঙ্কিপক্স।  ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, এই সময়ে মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাব অনেক দেশে।  এই রোগটি সেইসব দেশেও ছড়িয়ে পড়ছে, যেখানে আগে এই রোগটি সাধারণত পাওয়া যায়নি।  বিশেষ করে সমকামী ও উভকামী পুরুষরা এই রোগের কবলে বেশি আসছেন।  এর লক্ষণগুলি প্রায়শই যৌনাঙ্গ এবং মলদ্বারে ফুসকুড়ি হিসাবে আবির্ভূত হয়।  এ কারণে চিকিৎসকরা একে হারপিস বা সিফিলিস হিসেবে বিবেচনা করছেন।  ডব্লিউএইচও বলছে, বিশ্বের অনেক দেশেই এর প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে।  ইউরোপ, আমেরিকা, আফ্রিকা, পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় এবং পূর্ব ভূমধ্যসাগরের মতো দেশগুলি এর কবলে রয়েছে।  2022 সালে এর প্রাদুর্ভাব উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad