জ্বরে জুস পান আদৌ কি ক্ষতিকারক? - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Monday, 29 August 2022

জ্বরে জুস পান আদৌ কি ক্ষতিকারক?


খাবারে সঠিক জিনিস অন্তর্ভুক্ত করলে সবচেয়ে বড় রোগ আমরা দূর করতে পারি। কিন্তু ভুল জিনিস খেলে বিপরীত ক্ষতি হতে পারে। তাই কোনটি কোন রোগে উপকারী আর কোনটি নয় তা জানা খুবই জরুরী। জ্বর বা যেকোনো রোগ হলে আমাদের খাবারের প্রতি যত্নবান হওয়া উচিত এবং খাদ্যতালিকায় শুধুমাত্র সেইসব জিনিস অন্তর্ভুক্ত করা উচিত যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।


জ্বর এবং রস


জ্বরের কারণে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায় এবং শরীরে জলের অভাব হয় অর্থাৎ জলশূন্যতা দেখা দেয়। ডিহাইড্রেশন কাটিয়ে উঠতে জুস পান করার পরামর্শ দেওয়া হয়। জ্বরের পাশাপাশি প্রায়ই সর্দি-কাশির সমস্যা দেখা দেয়, তাই জ্বরে জুস পান করা উপকারী না ক্ষতিকর তা নিয়ে বিভ্রান্তিতে পড়েন মানুষ। জ্বরে জুস পান করা উচিত কি না এই দ্বিধা দূর করতে হবে। 


জ্বরে জুস খান নাকি?


ফলের রস পান করলে শরীরে জলের অভাব পূরণ হয় এবং জলশূন্যতার সমস্যা দূর হয়। বেশিরভাগ ফলের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা জ্বরের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি দেয়। ফলের রস পান করলে রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি বাড়ে, তাই জ্বরে ফলের রস পান করা খুবই উপকারী। কিন্তু ফলের রসের পরিবর্তে যদি আস্ত ফল খাওয়া হয়, তাহলে বেশি উপকার পাওয়া যায়। 


কোন ফলের রস পান করবেন? 


সাইট্রাস ফলের রস পান করলে জ্বরে উপকার পাওয়া যায়। কমলা, মৌসুমি, জাম্বুরা এবং লেবু ভিটামিন সি এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। এই ফলের রস পান করলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় এবং জ্বরের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি দেয়। 


জ্বরে শাকসবজি


ফল ছাড়াও কিছু সবজি আছে যা জ্বরে খাওয়া উপকারী। আমাদের ভিটামিন সি সমৃদ্ধ শাকসবজি এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিকারী শাকসবজি খাওয়া উচিত, যাতে জ্বরের দুর্বলতা দূর হয় এবং আমরা তাড়াতাড়ি সুস্থ হতে পারি। জ্বরে সবুজ শাক-সবজি ও ডাল খেতে হবে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad