খালি পেটে সুগার দ্রুত বাড়ে কেন? - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 15 September 2022

খালি পেটে সুগার দ্রুত বাড়ে কেন?


ডায়াবেটিস একটি আজীবন রোগ। এই রোগকে মূল থেকে নির্মূল করা যায় না, শুধু নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।  এটি একটি বিপাকীয় ব্যাধি, যাতে রোগীর শরীরে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা খুব বেশি থাকে।  যখন অগ্ন্যাশয় পর্যাপ্ত ইনসুলিন তৈরি করে না, তখন কোষগুলি ইনসুলিনের জন্য সঠিকভাবে প্রতিক্রিয়া জানায় না।  যদি ইনসুলিন সঠিকভাবে তৈরি না হয় তবে এটি একজন ব্যক্তির বিপাককেও প্রভাবিত করে।


ডায়াবেটিস রোগীদের খাবারের প্রতি বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে।  চিনি নিয়ন্ত্রণে রাখতে হলে খাদ্যাভ্যাস নিয়ন্ত্রণ করা খুবই জরুরি।  ডায়াবেটিস রোগীরা সকালে সবচেয়ে বেশি ভোগেন।  সকালে তার চিনির মাত্রা বেশি থাকে।  আপনি জানেন কি কি কারণে মর্নিং সুগার বেড়ে যায় এবং কীভাবে তা নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।


আসুন জেনে নিই সকালে ডায়াবেটিস রোগীদের সুগার এত বেশি হয় কেন?  ডায়াবেটিস রোগীদের খালি পেটে সুগার কেমন হওয়া উচিত এবং কীভাবে বাড়তি সুগার নিয়ন্ত্রণ করা যায়।


বিশেষজ্ঞদের মতে, ডায়াবেটিস রোগীদের সকালে সুগার বাড়ানোর প্রধান কারণ হরমোনের পরিবর্তন।  রাতে ঘুমানোর সময় হরমোন নিয়ন্ত্রণে রাখতে শরীরে বেশি পরিমাণে ইনসুলিন তৈরি হয়, যার কারণে সকালে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়।


আপনি কি ডায়াবেটিসের এই ১০টি প্রাথমিক লক্ষণ উপেক্ষা করছেন?


কতটুকু চিনি খালি পেটে থাকা উচিত: খালি পেটে চিনির মাত্রা ৭০ থেকে ১০০ এর মধ্যে থাকা স্বাভাবিক।  খাওয়ার পরপরই রক্তে শর্করার মাত্রা ১৭০-২০০ স্বাভাবিক বলে মনে করা হয়, যখন খাবারের ২-৩ ঘন্টা পরে রক্তে শর্করার মাত্রা ১২০-১৭০ mg/dl পর্যন্ত হওয়া উচিত।


 চিনি নিয়ন্ত্রণের উপায়ঃ


 ডায়াবেটিস রোগীরা যদি রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে চান, তাহলে সময়ে সময়ে সুগার পরীক্ষা করুন যাতে সুগারের বৃদ্ধি ও হ্রাস সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়।


 ডায়াবেটিস রোগীদের খাদ্যতালিকায় সবুজ শাকসবজি খান।


 ডায়াবেটিস রোগীরা যদি চিনি নিয়ন্ত্রণ করতে চান, তাহলে শরীরকে হাইড্রেটেড রাখুন।  শরীর হাইড্রেটেড রাখতে বেশি করে জল পান করুন।


 সকালে ডায়াবেটিসের মাত্রা বেশি থাকলে শরীরকে সচল রাখুন, আপনার সুগার নিয়ন্ত্রণে থাকবে।  প্রতিদিন হাঁটুন।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad