জামিন নামঞ্জুর! ফের জেল হেফাজতে অনুব্রত - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 19 January 2023

জামিন নামঞ্জুর! ফের জেল হেফাজতে অনুব্রত



রাজ্যে গরু পাচার কাণ্ডে, আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালতে পেশ করার আগে তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে আসানসোল সংশোধনাগারে সিবিআই তদন্তকারী অফিসার জিজ্ঞাসাবাদ করেছিলেন।  সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, অনুব্রত মণ্ডলকে বীরভূমের কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কে জাল অ্যাকাউন্টের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল তদন্তকারীরা।  বৃহস্পতিবার আদালতে এই প্রসঙ্গ তোলেন সিবিআইয়ের আইনজীবী।  অনুব্রত মণ্ডলের আইনজীবী অবশ্য জামিনের আবেদন করেননি।



 বিশেষ আদালতের বিচারক রাজেশ চক্রবর্তী উভয় পক্ষের যুক্তি শুনানি শেষে অনুব্রতকে ৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।  একই দিনে ফের শুনানি হবে গরু পাচার মামলার।



 অনুব্রত মণ্ডলকে গরু পাচারের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান।  তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, সমবায় ব্যাংকে একযোগে প্রায় ২০০ ব্যাংক হিসাব খুলে গরু পাচারের টাকা অনৈতিকভাবে স্থানান্তর করা হয়েছে।  ১৪ দিন পর বৃহস্পতিবার আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালতে পেশ করা হয় অনুব্রত মণ্ডলকে।  এই মামলায় অনুব্রত মণ্ডল এর ​​আগে কলকাতা হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেছিলেন।  তৃণমূল নেতার জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল হাইকোর্ট।  গরু পাচার মামলার তদন্তকারী সিবিআই আধিকারিকরা আসানসোল জেলে গত চৌদ্দ দিনে বীরভূম জেলার সিউদি সহকারি ব্যাঙ্কে প্রায় ১৭৭টি জাল অ্যাকাউন্ট সনাক্ত করেছেন।  এ বিষয়ে ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ব্যবস্থাপককে খোঁজখবর নেওয়া হয়েছে।



এমন আরও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট রয়েছে বলে মনে করছে সিবিআই।  বৃহস্পতিবার আসানসোল আদালতে এই সমস্ত তথ্য তুলে দিয়েছে সিবিআই।  আদালতে সিবিআই দাবী করেছে, বীরভূম সমবায় ব্যাঙ্কে ২৩১টি জাল অ্যাকাউন্ট পাওয়া গেছে।  সিবিআইয়ের দাবী, এক ব্যক্তির স্বাক্ষরে ২০০টি অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছিল।  এছাড়াও, কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা আদালতে বাফারিং অ্যাকাউন্টের উপর আলোকপাত করেছে।  অন্য কথায়, এই ভুয়ো অ্যাকাউন্ট থেকে সিবিআই বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে আর্থিক লেনদেনের আলামত পেয়েছে।  যাদের নামে এই অ্যাকাউন্টগুলি খোলা হয়েছিল তাদের কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পরে, সিবিআই জানতে পেরেছিল যে গ্রাহকরা পঞ্চায়েতের কাছে আধার কার্ড তুলে দিয়েছেন।


 

 সিবিআই আধিকারিকদের গোপন জবানবন্দি রেকর্ড করার পরে প্রাপ্ত তথ্যগুলি তার আইনজীবীরা আদালতে উপস্থাপন করেছিলেন।  আদালতে সিবিআই আইনজীবীর দাবী, তিনি আরও একটি নতুন গাড়ি পেয়েছেন।  কয়েক মাস টাকা পরিশোধ না করায় ভোলে বম রাইস মিলের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় সংশ্লিষ্ট বিভাগ।  অনুব্রত মণ্ডলের আইনজীবী রাইস মিলের অ্যাকাউন্ট 'ডিফ্রিজ' করতে এবং সমস্ত বকেয়া পরিশোধের জন্য আদালতে আবেদন করেছিলেন।  এ বিষয়ে পৃথক আবেদন করার নির্দেশ দেন বিচারক।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad